সর্বশেষ সংবাদ

শীর্ষ সংবাদ

রাজনীতির খবরা খবর

দেশবাংলা স্পেশাল

আজকের টিপ্পনী

আজকের টিপ্পনী, সাংবাদিকতা বনাম শিক্ষাবাবু

( খবরঃ সাংবাদিকতার অভিযোগে শেরপুরে ১২ শিক্ষককে নোটিশ দিলো শিক্ষা অফিস ) শেরপুরের শিক্ষাবাবু বিনা জ্বরেই ভীষণ কাবু, নোটিশ দিলেন ১২ জনের হাতে এঁদের না-কি ভাত যাবেনা পাতে। শিক্ষকতা পেশায় থেকে চলছে তাঁরা এঁকেবেঁকে, এঁরা না-কি পত্রিকাতেও লেখে তাইতো বাবু নোটিশ দিলেন ডেকে।। কিন্তু এসব খবর শুনে  শিক্ষাবাবুর মধুর গুণে, আমজনতা ভীষণ রকম ক্ষুদ্ধ এবার না-কি শুরু হবে যুদ্ধ। –সজীব আকবর।।

বিস্তারিত »

যে কারণে ‘টিম পল্লবী’ সেরা হয় বারবার

মো: সোহাগঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের মিরপুর বিভাগে পল্লবী থানাই বারবার কেন সেরা পুরস্কারে পুরস্কৃত হয়? কী এমন যাদু জানেন অফিসার ইনচার্জ...

সম্পূর্ণ খবর পড়ুন

মিডিয়া কর্ণার

জব কর্ণার

ধর্ম কথা

টুলেট

ভিডিও চিত্র

পাবলিক ভয়েস, ০৪-০২-২০২৩ইং

১. আমাদের এখান থেকে শিক্ষা নেয়া উচিত।। যারাই ভিন্ন কালচারের সাথে জরায় , তাদের শেষ পরিনতিহয় করুন ইতিহাস দিয়ে।  তিনি বাংলাদেশে সন্তানদের নিয়ে এসে আইনের লড়াই করেছেন বলেই আমরাজানতে পেরেছি। এরকম অনেক ঘটনা আছে যা আমরা জানতেও পারি না। তার বিয়ের জন্য বাংলাদেশে মেয়ে ছিল না,,?  তাদের মতো সচেতন মানুষ যখন হাসতে হাসতে ভুলগুলো করে , তখন আফসোস ছাড়া কি করারআছে। নিজের দেশে হলে তো কমপক্ষে সন্তানদের দেখতে পেতেন। সন্তানদের তিনি যেমন ভালোবাসেন, তার মা ও ভালোবাসেন।  আদালত সঠিক রায় ই দিয়েছে ,,,,, Shamima Khanom ২. বাবারা এমনই হয়। নিজ সন্তানকে কাছে পাবার জন্য উন্নত রাষ্ট্র আমেরিকা ছাড়লেন, জাপান ছাড়লেন,  নিজ দেশেআসলেন, আইনি লড়াইয়ে হেরে গেলেন, কিন্তু সন্তানের ভালোবাসা তাকে হারাতে পারেনি। সন্তানকেকাছে পাবার জন্য প্রয়োজনে আইন ভাঙ্গতে রাজি হয়, কিন্তু সন্তানকে হারিয়ে ফেলতে রাজি হয় না। বাবারা এমনি, তারা নিভৃতে কাঁদে। তাদের কান্না কেউ দেখতে পায় না।। Razib Dibonat ৩. শিশু সন্তান যার নিকট থাকতে চান তার নিকট-ই থাকতে দেয়া উচিৎ। একটি শিশুর ইচ্ছার বিরুদ্ধে কিছুকরা মানবাধিকার লংঘনের শামিল। A.N. Touhid Bonne  ৪. বড় নির্বাচনে কেউ এত অল্প ভোটে হারে না। হারিয়ে দেওয়া হয়। কখনো ক্ষমতা ব্যবহার করে। কখনওমেনে নিতে না পারার কারণে। Abdul Lotif ৫. আমিও প্রবাসী, আমি মনে করি বউ একটা বাড়িতে ফেলে রেখে বিদেশ 3,4 বছর পড়ে থাকা ব্যক্তির বউকি করছে তা নিয়ে এত মাথা ব্যথা রাখার দরকার নাই। যেই ধর্ম শিক্ষা দিয়েছে যিনা হারাম সেই ধর্ম স্ত্রীরঅধিকারের কথা ও বলা হয়েছে, একটা মানি আরেকটা জানার ও চেষ্টা করিনা। বিয়ে একটা করে বউরেখে বিদেশ এসে দিনের পর দিন পরে থাকা বাঙালি ই সব থেকে বেশি। Akhon Mahdi  ৬. সব ঠিক আছে… পরকিয়া কারী ব্যাক্তিকে শাস্তির আওতায় আনতে হবে..যাতে এদের দেখে সবাই শিক্ষা পায়। — হালদা নদীর মাঝি  ৭. কঠিন একটা বিচারের প্রয়োজন অন্তত প্রবাসীরা একটু স্বস্তি পাবে সারা জীবন প্রবাসীরা কষ্ট করে দেশেরমানুষের জন্য ফ্যামিলির জন্য নিজের স্ত্রী সন্তানের জন্য কিন্তু তাদেরই কষ্টের শ্রমের টাকা দিয়ে কিছু স্ত্রীআছে বাইরে পরকীয়া করে এ ধরনের কিছু কিছু মানুষকে কঠিন স্বাস্থ্যের প্রয়োজন এতে করে অন্যরা ভয়পাবে। Abdul Karin  ৮. একদম সত্যিকারের বিচার হয়ে ছে, এভাবে বিচার বিভাগ চল্লে আর আইনের প্রতি আস্থা আরও বেড়েযাবে বর্তমান সময় এই রায়টা খুবই দরকার ছিল আল্লাহপাক ছাড় দেন ছেড়ে দেন না। Md Khalil Sheikh  ৯. সঠিক বিচার হয়েছে ..দুইটা শিশুকে সে নির্মমভাবে হত্যা করেছে ওই দিনটার কথা এখনো মাঝে মাঝেমনে পড়ে  ..ঘটনার দিন রাতে বাড়িতে আমি একা ছিলাম  ভয়ে আমি সারারাত ঘুমাতে পারিনি ..ওরফাঁসি রায় আরো আগে হওয়া উচিত ছিল .. Al Amin ১০. যথাযথ বিচার হয়েছে কিন্তু হাস্যকর ব্যাপার হল এই রায় কার্যকর হবার মতো সময় সুযোগ আমার জীবনেনাও আসতে পারে। কারণ স্বাধীনতার 52 বছরেও কোন নারীকে মৃত্যুদণ্ড আদেশ কার্যকর করার রেকর্ড এখনো পর্যন্ত হয়নি। সুতরাং এ কথা বলায় যাই নারীদের জন্য এখনো দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির ব্যবস্থা যেহেতু নেই তারা এই সমস্তঅপকর্ম ধারাবাহিকভাবে অব্যাহত রাখলে সমস্যা খুব একটা হবে বলে মনে হয় না কারণ নারীর ব্যাপারে এখানে আমরা সবাই যথেষ্ট উদারতা ও নারীবান্ধব থানা পুলিশ আইন সমস্ত কিছুকরে ফেলেছি। এমনকি তাদেরকে পরকীয়াতে স্বাধীনতা দেওয়া আছে। শুধু দোষের দোষ একটাই ওই পরকীয়া ঢাকতে কাউকে খুন করা যাবে না। Alamin Tawfiq ১১. এইরকম সঠিক বিচার হইলে খারাপ মানুষগুলোর ভালো হওয়ার সুযোগ থাকবে। সঠিক বিচার হওয়ারজন্য বিচারক মন্ডলীকে যানাই অসংখ্য ধন্যবাদ। Mahedul Hasan ১২. অবৈধ সরকারের নাস্তিকের বাচ্চারা বলছে বানর থেকে নাকি মানুষের উৎপত্তি সকল আলেম-ওলামাদেরবেরিকেট  দিয়ে জেলখানায় পাঠানো হচ্ছে আর আমরা মুসলমান হয়ে তা নীরবে সহ্য করছি আমরা কিসত্যি মসলমান হতে পেরেছি নবী কি এই শিক্ষায় দিয়ে গেছে পৃথিবীতে কুত্তার বাচ্চা প্রশাসন একজনঅবৈধ নাস্তিকের সরকারের পক্ষে অন্যায় কাজ করতে দ্বিধাবোধ করছে না তাদের নিজেদের স্বার্থে সবাইরুখে দাড়াও। Md Ripon Sheikh  ১৩. আমাদের বেতন বা আয় অনুযায়ী সামর্থ্যের মধ্যে সামঞ্জস্য রেখে চলাটাই কঠিন হয়ে পড়েছে! এভাবেচললে মানুষের মধ্যে  দূর্নীতি করার ঝোঁক বাড়বে বই কমবে না। Shibani   ১৪. প্রথম আলোর উদ্দেশ্যে বলছি,,আপনারা এতো সহজলভ্য হয়ে গেছেন আমরা অবাক না হয়ে পারিনা!!! নিউজ করার জন্য নিজেদের এতো সস্তাভাবে সপে দিচ্ছেন এসব বাজে মানুষদের পিছনে।প্লিজআপনাদের আমরা সম্মান করি,দয়া করে ভালো মানুষ ও গুরুত্বপূর্ণ নিউজ করবেন,,এতে আপনাদেরকদর বাড়বে।।।এটা কি খুব মূল্যবান কোনো নিউজ ভাই,আপনাদের কাছে প্রশ্ন?? Narayon Chandra ১৫. মানে দেশে সংবাদের অভাব পরলে যা হয়।কিন্তু দেশে তো সংবাদেরও অভাব না।কোনো ভাবে একটাসংবাদপত্র চালিয়ে নেওয়া যে আমরা সংবাদ তো দিচ্ছি জনগণকে। সে যেমন সংবাদই হোক।গোবর হোকবা পদ্ম।জনগণ তো নিচ্ছে।তাতেই আমাদের চলছে। Alif Mohammad  ১৬. নর্তুকি আর বেস্যাদের সাময়িক সুখ বিলাসিতা থাকবেই সময়ের পরিবর্তনে একসময় সাহায্যের আবেদনকরবে wait and see few years later